এনবি নিউজ : আওয়ামী লীগ সরকারের দিন শেষ হয়ে এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘সরকারকে বলতে চাই, আপনাদের দিন শেষ হয়ে এসেছে। সুতরাং ভালোয় ভালোয় পদত্যাগ করুন। পদত্যাগ করে নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন। নিরপেক্ষ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করুন।’

আজ মঙ্গলবার ৮ মার্চ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল আয়োজিত দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজকে এই সরকার যদি আরও কিছু দিন ক্ষমতায় থাকে, তাহলে দেশের কোনও অস্তিত্ব থাকবে না। এরা বিচার ব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে। এই সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে প্রশাসনযন্ত্র বা আমলাতন্ত্রকে সম্পূর্ণ দলীয়করণ করেছে। শিক্ষা ব্যবস্থাকে সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে তাদের দলীয় লোক নিয়োগ দিয়ে দুর্নীতির আখড়া তৈরি করেছে।’

দ্রব্যমূল্য বাড়ার কারণ সালমান এফ রহমান মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘দ্রব্যমূল্য বাড়ার কারণ জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো। আরেকটি কারণ গ্যাসের দাম বাড়ানো। গ্যাসের দাম বাড়ছে কেন? এলপিজি গ্যাস আমদানি করে কে, জাতি জানতে চায় তো। এই এলপিজি গ্যাস আমদানির প্রধান ব্যক্তি কে? তিনি হচ্ছেন সালমান এফ রহমান। প্রধানমন্ত্রীর শিল্প বিষয়ক উপদেষ্টা। তিনি যতবারই এলপিজি গ্যাস আমদানি করেছেন, ততবারই দাম বাড়িয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘সরকার পরিকল্পিতভাবে দেশকে দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত করেছে। এর জবাব তারা দিতে পারবে না। আজকে এভাবে সিন্ডিকেট তৈরি করে, প্রজেক্ট তৈরি করে, দেশ থেকে লুট করে কানাডায়, মালয়েশিয়ায় তারা বাড়িঘর তৈরি করছে।’

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ‘এ দেশের যা কিছু ভালো, যা কিছু অর্জন করেছিলাম, সবকিছু এই সরকার ধ্বংস করে দিয়েছে। আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের পক্ষে সংগ্রাম করতে গিয়ে আজকে অসুস্থ অবস্থায় বন্দি রয়েছেন। আমাদের নেতা তারেক রহমান, তাকে অসংখ্য মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে বিদেশে নির্বাসিত করে রেখেছে। এখানে এমন একজনও নেই, যার বিরুদ্ধে মামলা নেই। প্রত্যেকের দিন শুরু হয় কোর্টে হাজিরা দিয়ে।’

আওয়ামী লীগ সরকারের পতন ঘটাতে সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজকে আমাদের সবাইকে রুখে দাঁড়াতে হবে। আরও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আসুন সবাই, সব রাজনৈতিক শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই ভয়াবহ ফ্যাসিস্ট কর্তৃত্ববাদী সরকারকে পরাজিত করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করি।’

যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুল আলম নীরবের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমানসহ যুবদলের নেতারা।
এ টি