এনবি নিউজ : বিএনপির উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, তাদের উদ্দেশ্য হলো— দেশে অরাজকতা তৈরি করা, গোলযোগ সৃষ্টি করা। সাপকে বিশ্বাস করা গেলেও বিএনপি-জামায়াতকে বিশ্বাস করা যায় না।

আজ সোমবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনস্থল পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন তিনি। নানক সম্মেলনের মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপকমিটির আহ্বায়ক।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষের অবস্থা তাদের মাথায় ছিল না কোনোদিন। ক্ষমতায় থাকতেও তারা দায়িত্ব পালন করেনি। তারা বালকসুলভ আচরণ করছে, যা রাজনৈতিক দায়িত্বশীল আচরণ নয়। তারা দেশকে অস্থিতিশীল করতে অনেক পরিকল্পনা করছে।’

বিএনপি-জামায়াতকে বিষধর সাপের সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, ‘সাপকে বিশ্বাস করা গেলেও বিএনপি-জামায়াতকে বিশ্বাস করা যায় না। এই বিষধর সাপ নিয়ে অত্যন্ত সর্তক আছি আমরা, দেশবাসীও সর্তক রয়েছে। তারা ১০ লাখ লোক জমায়েত করার কথা চিৎকার করে বলেছে। তাহলে তো তাদেরকে ১০ লাখ লোক জমায়েত করার মতো জায়গায় যেতে হবে।’

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘এমন সময় দন্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানকে নিয়ে পানি ঘোলা করার চেষ্টা করছে বিএনপি। এটি দায়িত্বশীল বিরোধী দলের কাজ নয়। তাদের দেশের প্রতি কোনও মমত্ববোধ নেই, মানুষের প্রতি দায়িত্ববোধ নেই।’

আওয়ামী লীগের সম্মেলন নিয়ে আনন্দ উৎসবের কোনও ঘাটতি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বৈশ্বিক সংকটের কারণে সম্মেলনগুলো সীমিত পরিসরে এবং স্বল্প খরচে করতে বলেছেন আমাদের নেত্রী। তিনি বৈশ্বিক সংকট, অর্থনীতিক অবস্থা অক্ষুণ্ণ রাখতে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আগামী মাস বিজয়ের মাস। এই মাসে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মেলনগুলো করার মধ্য দিয়ে আগামী দিনের পথ রচনা করবো।’

এ সময় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকী, স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমানসহ মঞ্চ ও সাজসজ্জা কমিটির সকল সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ টি