এনবি নিউজ : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘বিশেষজ্ঞ কমিটির পরামর্শ নিয়ে আমরা আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। করোনার সংক্রমণ বেড়ে গেলে প্রয়োজনে আমরা আবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত নেব। শিক্ষার্থীদের আমরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে ফেলব না। সংক্রমণের হার কমেছে বলেই আমরা স্কুল-কলেজ খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

রাজধানীর মহাখালীতে তিতুমীর কলেজে আজ শুক্রবার বাংলাদেশ ডেন্টাল সার্জন (বিডিএস) পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এ সময় টিকা কার্যক্রম নিয়েও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি।

করোনার টিকা আমদানির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আশা করছি, চলতি মাসে চীন থেকে দুই কোটি টিকা পাব। আজও চীন থেকে ৫০ লাখ টিকা আসার একটা শিডিউল আছে। এ মাসে এমন চারটি শিডিউল রয়েছে। এখন থেকে আগামী নভেম্বর মাস পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে ৫০ লাখ টাকা আসবে। এসব টিকা পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে টিকা কার্যক্রম জোরদার করা হবে। গণটিকা দেওয়ার বিষয়টি নিয়েও আমরা চিন্তা করব। গতকাল বৃহস্পতিবার কোভ্যাক্সের আওতায় আমরা ১৮ লাখ টিকা পেয়েছি। এর আগেও আমরা তাদের কাছ থেকে ১০ লাখ টিকা পেয়েছি।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এখনও সিদ্ধান্ত দেয়নি। অনেক দেশে নিজস্ব উদ্যোগে নিজেদের আইন অনুযায়ী ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদনের অপেক্ষায় আছি। অনুমোদন পেলে এবং টিকার সরবরাহ পর্যাপ্ত হলে আমরা এ ধরনের কার্যক্রম হাতে নেব।’