এনবি নিউজ : পূজাকে কেন্দ্র করে সাম্প্রদায়িক হামলা-সন্ত্রাসের জন্য ব্যর্থতার দায় নিয়ে অবিলম্বে সরকারকে পদত্যাগ করার দাবি জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। আজ বৃহস্পতিবার বিকালে রাজধানীর পুরানা পল্টন মোড়ে আয়োজিত সমাবেশে জোটের নেতারা এ দাবি জানান।

সারাদেশে অব্যাহত সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস প্রতিরোধ ও হামলাকারী এবং মদদদাতাদের গ্রেফতার-বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং গণতন্ত্র ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার’ দাবিতে বাম গণতান্ত্রিক জোটের উদ্যোগে দেশব্যাপী ‘সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস প্রতিরোধ দিবস’ পালিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পুরানা পল্টনে সমাবেশ হয়।

জোটের নেতারা সমাবেশে বলেন, অতীতেও দেশবাসী ‘জজ মিয়া’ নাটক দেখেছে এবং শুনেছে। এবারও দেশবাসীর আশঙ্কা, শনাক্ত অভিযুক্তকারী ইকবালকে গ্রেফতারের আগেই নেশাগ্রস্ত, পাগল ইত্যাদি অভিধায় ভূষিত করে ঘটনাকে লঘু করার চক্রান্ত চলছে।

নেতাদের অভিযোগ, মুক্তিযুদ্ধের মধ্যদিয়ে প্রতিষ্ঠিত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে গত ৫০ বছরে শাসক শ্রেণির দলগুলো ক্ষমতায় থাকা ও ক্ষমতায় যাওয়ার নির্লজ্জ প্রতিযোগিতায় সাম্প্রদায়িকতাকে মদদ দিয়ে এসেছে। জনগণ যে সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তিকে পরাজিত করেছে, শাসক শ্রেণির প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ আশ্রয়ে প্রশ্রয়ে তা পুরনায় মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন— সিপিবির সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, ইউসিএলবি’র সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, বাসদ (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নির্বাহী ফোরামের সদস্য মানস নন্দী, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবীর জাহিদ, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, গণসংহতি আন্দোলনের নেতা বাচ্চু ভুইয়া ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের নেতা রুবেল শিকদার।
এ টি