ছবিটি প্রযোজনা করছে বাংলাদেশের কাজী প্রোডাকশনস হাউস ও যুক্তরাজ্যের ফর ফিল্মস। ছবির বাংলাদেশি প্রযোজক হিমেল তারিক। এ ছাড়া ব্রিটিশ প্রযোজক জেনি ওয়াকার যুক্ত হয়েছেন ছবিটির সঙ্গে। জেনি বিবিসি, চ্যানেল ফোরের জন্য প্রামাণ্যচিত্রসহ বিভিন্ন প্রযোজনা তৈরি করেছেন।

‘প্রজেক্ট অমি’তে যুক্ত হয়েছেন বলিউড অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। ‘প্রজেক্ট অমি’ ছবির গল্প সাজানো হয়েছে ২০৫০ সালকে ঘিরে

নির্মাতা অমিত আশরাফ বলেন, ‘আমরা আমাদের স্টুডিওকে হলিউড স্ট্যান্ডার্ড প্রপ মেকিং ওয়ার্কশপে রূপান্তরিত করেছি। সেখানে আছে থ্রি–ডি প্রিন্টার, লেজার কাটারস, ভিআর প্রি-ভিজ্যুয়ালাইজেশন ইত্যাদি। এগুলোর পেছনে আমাদের অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করছে নেটফ্লিক্সের আই অ্যাম মাদার ছবিটি।’

ছবির নির্মাতা অমিত আশরাফ এর আগে ‘উধাও’ নামে একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। এ ছাড়া তিনি বানিয়েছিলেন ‘কালি’ নামে একটি ওয়েব সিরিজ।