এনবি নিউজ :   সিলেট বিভাগীয় বিএনপির গণসমাবেশ আজ শনিবার। এ উপলক্ষে গত কয়েকদিন আগে থেকে সমাবেশস্থলে পৌঁছেছেন নেতাকর্মীরা। আর গতকাল রাত ১০টার দিকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ কেন্দ্রীয় নেতারা সেখানে পৌঁছান। যদিও পদে পদে বাধার অভিযোগ রয়েছে। রয়েছে পরিবহণ ধর্মঘটের ভোগান্তির অভিযোগ।

সমাবেশস্থলে গিয়ে জানা গেছে, বিকল্প যানবাহন ব্যবহার করে নানা ঝক্কিঝামেলা পেরিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা সিলেটের গণসমাবেশে পৌঁছান। গত তিন দিন ধরেই সমাবেশস্থলে আসতে থাকেন তাঁরা। গতকাল শুক্রবার সেখানে লোকারণ্যে পরিণত হয়।

সিলেট জেলায় চলছে আজ শনিবার সকাল থেকে ১২ ঘণ্টার ধর্মঘট, আর আগে থেকেই সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজারে শুরু হয় ৩৬ ঘণ্টা বাস ধর্মঘট। ডাক দিয়েছে মালিক সমিতি। এ ছাড়া হবিগঞ্জে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের পরিবহণ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে মোটর মালিক গ্রুপ।

এদিকে, এক দিন আগেই সমাবেশের আমেজ শুরু হয় সিলেটে। শুক্রবার সূর্যাস্তের আগেই বিপুল নেতাকর্মীর শ্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে ওই এলাকা। আগত নেতাকর্মীদের মধ্যে নারীরাও রয়েছেন।

বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে নেতাকর্মীদের একের পর এক মিছিল ঢুকতে শুরু করে সমাবেশের মাঠে। ব্যানার-ফেস্টুনের পাশাপাশি দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবিসহ স্থানীয় নেতাদের ছবি সম্বলিত প্লাকার্ড নিয়ে মিছিলে মিছিলে আসেন তারা। সব মিলিয়ে এক উৎসবের আমেজ বিরাজ করতে শুরু করে নগরীর চৌহাট্টা এলাকার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে।

আজকের বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রধান বক্তা স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, বিশেষ অতিথি আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সেলিমা রহমান।

যেভাবে নেতাকর্মীরা পৌঁছান সিলেটে

বৃহস্পতিবার থেকে ছোট-বড় যান চলাচল বন্ধ হওয়ার আগেই বিভিন্ন উপজেলা থেকে নেতাকর্মীরা সিলেট মহানগরীতে প্রবেশ করতে থাকে। এখানে আসতেও নেতাকর্মীদের পথে পথে নানা বাধা অতিক্রম করতে হয়েছে।

সমাবেশ মাঠে জুমার নামাজ আদায়

সিলেটে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশের মাঠেই গতকাল দুপুরে জুমার নামাজ আদায় করেন সেখানে অবস্থান নেওয়া নেতাকর্মীরা। কেন্দ্রীয়, স্থানীয় ও সিলেটের বিভিন্ন জেলা-উপজেলার নেতারাও এ সময় উপস্থিত হয়ে নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে বিভাগীয় গণসমাবেশ সফল করতে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। একইসঙ্গে বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনা করেও দোয়া করা হয়।

নেতা–কর্মীদের সিলেট শহরে ঢুকতে পুলিশ বাধা দিচ্ছে: বিএনপি

বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আবদুল মুক্তাদির বলেন, ‘বিএনপির অনেক নেতাকর্মী আমাদের মুঠোফোনে জানাচ্ছেন, তাঁদের আসার পথে বিভিন্ন স্থানে বাধা দেওয়া হচ্ছে। তবে গাড়ি বদলে বাধাবিপত্তি ঠেলে অনেকে ঠিকই শহরে পৌঁছেছেন।’ এরই মধ্যে অন্তত দুই লাখ মানুষ গণসমাবেশে যোগ দিতে সিলেট শহরে এসেছেন বলে তিনি দাবি করেন।

কোনো বাধাবিপত্তিই জনস্রোত ঠেকাতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী। তিনি গতকাল রাতে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘পুলিশ সিলেটমুখী সড়কগুলোয় চলাচলে বাধা দিচ্ছে। ফলে অনেক নেতাকর্মী আসতে পারছেন না। তবে সমাবেশ শুরুর এক দিন আগে সমাবেশস্থল মানুষে পরিপূর্ণ হয়ে গেছে। শনিবার পুরো সিলেট শহর সমাবেশের নগরে পরিণত হবে।’