এনবি নিউজ বিনোদন ডেস্ক : দক্ষিণী সুপারস্টার রামচরণ নাকি ভারতের বাংলা ছবিতে কাজ করতে চলেছেন। সম্প্রতি এ রকমই দাবি নেটদুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। সকলের মনেই প্রশ্ন, তা হলে রামচরণ কোন পরিচালকের ছবিতে অভিনয় করবেন? ছবির নাম কী? তার থেকেও বড় কথা, রামচরণের মতো ‘সুপারস্টার’কে ছবিতে নেওয়ার মতো বাজেট কি বাংলা প্রযোজকদের আছে?

অতিমারির পর থেকে হিন্দি সিনেমার অবস্থা বেশ শোচনীয়। এক সময় বক্স অফিসে কামাল দেখানো অক্ষয় কুমার থেকে শুরু করে আমির খান, ধরাশায়ী সকলেই। আর সেখানেই বাজিমাত করেছে দক্ষিণী ছবি। ‘পুষ্পা’ ছবির হাত ধরে সারা দেশে দক্ষিণী ছবিগুলিকে নিয়ে যে উন্মাদনা তৈরি হয়েছিল তা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। শুধু তাই নয়, ‘আরআরআর’, ‘কেজিএফ ২’ হোক কিংবা হালফিলের ‘কান্তারা’, সবক’টি ছবিই বক্স অফিসে লেটার মার্কস নিয়ে পাশ করেছে।
একসঙ্গে নাগা-সামান্থা! কোথায় দেখা যাবে প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রী কে?

সম্প্রতি এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দেন রামচরণ। সেখানেই ভারতীয় সিনেমার ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা করেন এই তারকা। সঙ্গে ছিলেন অক্ষয় কুমারও। সেই মঞ্চেই তিনি জানান বাংলা সিনেমার প্রতি তাঁর ভাললাগার কথা।ৱ

আরও নির্দিষ্ট করে বললে অভিনেতা জানান, প্রত্যেক অভিনেতাই চান নিজের ভাষায় কাজ করতে কিন্তু, ভারতীয় সিনেমা বদলেছে। উত্তর ও দক্ষিণ বলে আলাদা করে আর কোনও বিভাজন থাকছে না। বরং আমরা ধীরে ধীরে সামগ্রিক ভাবে একটা ইন্ডাস্ট্রি হয়ে উঠছি। অভিনেতা জানিয়েছেন, তিনি অন্যান্য ভাষাতে কাজ করতে চান। ঠিক যেমন করেছেন তাঁদের পূর্বসুরি রজনীকান্ত, কমল হাসানরা।

জয়াকে আগে এ ভাবে কেউ দেখেনি! ৭ বছর পর পরিচালনায় ফিরে আরও কী কী চমক কর্ণের?

রামচরণ বলেন, ‘‘আমি গুজরাতি ভাষায় কাজ করতে চাই। এ ছাড়াও বাংলা ভাষার ছবি নিয়ে ধারণা রয়েছে। বাংলা ছবিতে কাজ করতে চাই। যদি কোনও পরিচালক আমার কথা ভাবেন তাহলে বাংলা ছবিতে কাজ করতে আমার কোনও আপত্তি নেই।’’

প্রসঙ্গত বাংলার সঙ্গে বেশ ভাল যোগাযোগ রয়েছে রামচরণের। তিনি সময় করে বাংলা ছবিও দেখেন। নিজের ছবি ‘আরআরআর’-এর প্রচারের সময় কলকাতায় ঝটিকা সফরে এসেছিলেন অভিনেতা।